দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর বিনোদন কেন্দ্রগুলো

ঈদ উপলক্ষে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে দেশের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে। করোনার ধাক্কা কাটিয়ে দুই বছর পর স্বস্তিতে ঘুরতে পেরে উচ্ছ্বসিত পর্যটক ও দর্শনার্থীরা।

নগরীর বিভিন্ন দর্শনীয়স্থান ঘুরে দেখা যায়, ঈদের দ্বিতীয় দিনেও পর্যটকদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে বিনোদন কেন্দ্রগুলো।

রাজধানীর শিশুপার্ক, চন্দ্রিমা উদ্যান, জাতীয় সংসদ ভবন এলাকা, ধানমন্ডি লেক, চিড়িয়াখানা, হাতিরঝিল, বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার, আহসান মঞ্জিল, লালবাগ কেল্লা, শ্যামলী শিশু মেলা কিংবা ঢাকার অদূরে আশুলিয়ার ফ্যান্টাসি কিংডম, নন্দন পার্ক সবখানেই দর্শনার্থীদের ভিড়। নতুন পোশাকে শিশু-কিশোর, তরুণ-তরুণী, নারী-পুরুষ এসব বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরে ঘুরে সময় কাটাচ্ছেন।

প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য থেকে জানা যায়, রাজধানীর পাশাপাশি দেশের সর্বত্র পর্যটক ও দর্শনার্থীদের ঢল নেমেছে। চট্টগ্রামের পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত আর সাগরকন্যা কুয়াকাটায় দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড়। নীল জলরাশিতে স্পিড বোটে ভেসে বেড়াচ্ছে পর্যটকরা।

দর্শনার্থীরা বলেন, গতবার করোনার কারণে ঈদের দিনটি ভালো মতো কাটাতে পারিনি। এবার পতেঙ্গা ঘুরতে এসে খুবই ভালো লাগছে।

এদিকে নওগাঁর পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহারেও ঢল নামে পর্যটকের। দুই বছর পর আবারও স্বস্তিতে ঈদ আনন্দ উপভোগ করে আনন্দিত সবাই। তাই খুশির মুহূর্ত ফ্রেমবন্দি করতে ভোলেননি কেউ।

হইহুল্লোড়, আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠেছে রংপুরের বিনোদন কেন্দ্রগুলোও। ঈদ আনন্দে মুখর ছিলো নগরীর চিড়িয়াখানা, চিকলি ওয়াটার পার্ক, সুরভী উদ্যান।

এছাড়া, দেশের প্রতিটি বিনোদন কেন্দ্রেই শিশু-কিশোরসহ সব বয়সী মানুষের আনাগোনা ছিলো চোখে পড়ার মতো।