নীতিমালায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের ৮ ঘণ্টা অফিসের উল্লেখ নেই

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মত ৮ ঘণ্টা অফিস করার বিষয়টি 'পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালায় অন্তর্ভুক্ত নেই বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)। শিক্ষা ছুটি নিয়ে বিদেশ যাওয়ার আগে শিক্ষকদের অব্যাহতিপত্র জমা দেয়ার বিষয়টিও এ নীতিমালা অন্তর্ভুক্ত নেই বলে জানিয়েছে কমিশন।

রোববার ইউজিসির জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়েছে।

জানা গেছে, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের টিচিং লোড ক্যালকুলেশন নীতিমালা-২০২২’নিয়ে দেশের কয়েকটি গণমাধ্যম সম্প্রতি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কিছু কিছু গনমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মত প্রতিদিন ০৮ ঘণ্টা অফিস করতে হবে এবং শিক্ষা ছুটি নিয়ে বিদেশ যাওয়ার আগে অব্যাহতিপত্র জমা দিতে হবে। এ বিষয়ে নিজেদের ব্যাখ্যা দিয়েছে কমিশন।

ইউজিসি বলছে, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরকে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ন্যায় প্রতিদিন ৮ ঘণ্টা অফিস করতে হবে’ এবং ‘শিক্ষা ছুটি নিয়ে বিদেশ যাওয়ার আগে অব্যাহতিপত্র জমা দিতে হবে’ শীর্ষক যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে তা খসড়া নীতিমালায় অন্তর্ভুক্ত নেই।

ইউজিসি আরও বলছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশিষ্ট শিক্ষাবিদরা এ নীতিমালা প্রণয়নে সংশ্লিষ্ট আছেন। খসড়া নীতিমালা চূড়ান্ত হলে তা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বাস্তবায়নের জন্য পাঠানো হবে।