চট্টগ্রাম বোর্ড থেকে পাঁচ কর্মকর্তাকে সরিয়ে দিলো শিক্ষা মন্ত্রণালয়

চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের উপপরিচালক, সহকারী সচিব, অডিট অফিসারসহ বিভিন্ন পদে কর্মরত পাঁচ কর্মকর্তাকে সরিয়ে দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারভুক্ত এসব শিক্ষকদের প্রেষণ প্রত্যাহার করে দেশের বিভিন্ন সরকারি কলেজে বদলি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার তাদের বদলি করে প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ।

জানা গেছে, বোর্ডের হিসাব ও নিরীক্ষা শাখার উপপরিচালক সহযোগী অধ্যাপক মো. তাওয়ারিক আলমকে চট্টগ্রামের সরকারি হাজী এ বি কলেজের বদলি করা হয়েছে। আর প্রেষণে বোর্ডের হিসাব ও নিরীক্ষা শাখার উপপরিচালক পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে চট্টগ্রামের সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসীন কলেজের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ এমদাদ হোছাইনকে।

বোর্ডের উপ-কলেজ পরিদর্শক সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ হালিমকে প্রেষণ প্রত্যাহার করে নোয়াখালী সরকারি কলেজে বদলি করা হয়েছে। আর বান্দরবান সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক বিজয় ভৌমিককে প্রেষণে বোর্ডের উপ-কলেজ পরিদর্শক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

চট্টগ্রাম বোর্ডের হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা অধ্যাপক আবুল কালাম মো. ইকবাল হোসেনকে প্রেষণ প্রত্যাহার করে রাজশাহী কলেজে বদলি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আর বোর্ডের অডিট অফিসার মৃনাল চন্দ্র নাথকে প্রেষণ প্রত্যাহার করে চট্টগ্রামের স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজে বদলি করা হয়েছে।

একইসঙ্গে চট্টগ্রাম বোর্ডের সহকারী সচিব মো. সাইফুদ্দিনকে প্রেষণ প্রত্যাহার করে চট্টগ্রামের গাছবাড়িয়া সরকারি কলেজে বদলি করে হয়েছে। আর চট্টগ্রাম বোর্ডের সহকারী সচিব হিসেবে প্রেষণে নিয়োগ পেয়েছেন চট্টগ্রামের সরকারি হাজী এ বি কলেজের প্রভাষক বিধান দত্ত।

একই প্রজ্ঞাপনে যশোর শিক্ষা বোর্ডের নতুন স্কুল পরিদর্শক হিসেবে প্রেষণে যশোর সরকারি সিটি কলেজে সহযোগী অধ্যাপক মো. সিরাজুল ইসলামকে।নিয়োগ দেয়া হয়েছে। আর যশোর বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক সহযোগী অধ্যাপক ড. বিশ্বাস শাহীন আহমেদকে বাগেরহাট সরকারি মহিলা কলেজে বদলি করা হয়েছে।

শিক্ষার সব খবর সবার আগে জানতে দৈনিক শিক্ষার ইউটিউব চ্যানেলের সাথেই থাকুন। ভিডিওগুলো মিস করতে না চাইলে এখনই দৈনিক শিক্ষাডটকমের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন এবং বেল বাটন ক্লিক করুন। বেল বাটন ক্লিক করার ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভিডিওগুলোর নোটিফিকেশন পৌঁছে যাবে।